রবিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২১

মাতাদিন পেশকার কীভাবে লোটা চুরির সন্ধান পেলেন তা সংক্ষেপে লেখো ।

 

মাতাদিন পেশকার কীভাবে লোটা চুরির সন্ধান পেলেন তা সংক্ষেপে লেখো ।

 


প্রশ্ন :- মাতাদিন পেশকার কীভাবে লোটা চুরির সন্ধান পেলেন তা সংক্ষেপে লেখো ।


উত্তর: প্রখ্যাত কথা সাহিত্যিক সতীনাথ ভাদুড়ির লেখা " ডাকাতের মা " গল্পের সনামধন্য ধনী আইনচঙ্গু হলেন মাতাদিন পেশকার ।



[   ] গভীর রাতে সৌখির মা পেশকারের বাড়ীর উত্তর দিকের আড়াই হাত গাঁথা পাঁচিল ডিঙিয়ে এসে বারান্দা থেকে জল ভর্তি লোটা চুরি করে তা দোকানে চৌদ্দ আনায় বিক্রি করে দেয় । সকালে " সখের লোটা " না পেয়ে পেশকার সাহেব " সারা বাড়ী মাথায় করে তোলে "। লোটা হল ঘরের লক্ষী খোকার মা নাকি কান্নার সঙ্গে একথা জানালেন পেশকার তাকে আইনের ধারার কথা শুনিয়ে সেই খবর থানায় পাঠিয়ে দেন । লোটা দৈনন্দিন জীবনে গৃহস্থালির আবশ্যক একটা জিনিস । তার ওপর পেশকার খুঁত খুঁতে হওয়ায় দিনে বারকয়েক লোটা মাজতেন । এরূপ প্রয়োজনীয় জিনিস চুরি হওয়ায় নতুন লোটা না হলে তাঁর চলে না । তাই ফিরতি পথে তিনি লোটা কিনতে বাসনের দোকানে যান ।

[  ] নতুন লোটাগুলোর মুখ ফাঁদালো নয় বলে পেশকার যখন অপছন্দ করে তখন বাসনওয়ালা তাকে একটি পুরানো লোটা দেখায় । লোটা দেখেই পেশকার চিনতে পারে । দোকান দারকে চাপ দিতেই জানায় সৌখির মায়ের কাছ থেকে সে লোটা টা কিনেছে । তখন পেশকার সাক্ষী সহ সকালে সৌখির বাড়িতে যায় চোর ধরতে । এই চুরির কথা জানতে পেরে মাকে অপমানের হাত থেকে বাঁচাতে ডাকাত সৌখি ছিঁচকে চোরের কলঙ্ক মাথায় নিয়ে জেলে চলে যায় । এদিকে পেশকার তার সখের লোটা ও ফিরে পায় ।



কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

/>